শাওয়াল মাসে ছয় সিয়াম- আব্দুল্লাহ আল মাসূম

0
264
6 Siyam
6 Siyam

শাওয়াল আরবি বছরের ১০ম মাস। রমযানের পর এ শাওয়াল মাসে ৬টি সিয়ামের কথা হাদীসে বিশেষভাবে বলা হয়েছে। নির্দিষ্ট কোনো দিন কিংবা তারিখের বাধ্যবধকতা ছাড়া পুরো শাওয়াল মাসজুড়ে ৬টি সিয়াম রাখলে সারা বছর সিয়াম রাখার সাওয়াব অর্জিত হয়।
স্বীয় বান্দাকে অল্পের বিনিময়ে বিপুল সসংখ্যক নেকি ও সাওয়াব অর্জন করার সুযোগ করে দেওয়া মহামহিয়ান আল্লাহ তা’আলার পক্ষ থেকে অশেষ মেহেরবাণি ও করূণা ছাড়া আর কি বলা যায়!
প্রতি নেকি দশগুণ পর্যন্ত পৌঁছে- এ মূলনীতির আলোকে পুরো রমযানে ত্রিশটি সিয়াম এবং শাওয়াল মাসে ৬ টি সিয়াম মিলে সর্বমোট ৩৬ টি সিয়াম হয়। সে আলোকে দশ গুণ করে ৩৬ টি সিয়াম রাখলে পুরো বছরে ৩৬০ টি সিয়ামের নেকি সহজেই অর্জিত হয়। আর পুরো বছরে মোট ৩৬৫ দিন হয়। ৫ দিন সিয়াম রাখা হারাম। এভাবে কেউ রমযানে সিয়াম পূর্ণ করার পরে শাওয়াল মাসে ৬টি সিয়াম রাখলে সারা বছরে সিয়াম রাখার সমমানের নেকি অর্জন করে।

এ প্রসঙ্গে হাদীসে সুসংবাদ প্রদান করা হয়েছে। বিশিষ্ট সাহাবী আবু আইয়্যুব আল-আনসারী রাযি. থেকে বর্ণিত, নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ইরশাদ করেন-

من صام رمضان ثم أتبعه ستًا من شوّال- كان كصيام الدهر-

অর্থঃ যে ব্যক্তি রমযানের সব সিয়াম পূর্ণ করার পরে শাওয়াল মাসে ৬ টি সিয়াম রাখে, সে যেনো সারা বছর সিয়াম রাখার সাওয়াব অর্জন করলো।

(সহীহ মুসলিমঃ হা-১১৬৪; সুনানে আবি দাউদঃ হা-২৪২৫; সুনানে তিরমিযীঃ হা-৭৫৯)

হাদীসের বিখ্যাত দুই মণীষী ইমাম ইবনে হিব্বান এবং ইবনে খুযাইমাহ উক্ত হাদীসকে সহীহ বলে সাব্যস্ত করেছেন। দেখুন- সহীহ ইবনে হিব্বানঃ হা-৩৬৩৪; সহীহ ইবনে খুযাইমাহঃ হা-২১১৪।

download 13 1
6 siyam in Shawal

ইবনুল মূলকিন রহ. বলেন-
‘এ হাদীসটি অবশ্যই সহীহ। এর বর্ণনাকারীদের মধ্যে সাদ বিন সাঈদ নামে একজন রয়েছেন। কমপক্ষে ২৯ জন তাঁর কাছ থেকে এ হাদীসটি বর্ণনা করেছেন। তাঁরা সবাই ছিলেন হাফিযে হাদীস। এছাড়া তাঁরা হাদীস বিশারদগণের নিকট ছিলেন নির্ভরযোগ্য।
আমি তাঁদের সবার পরিচিতি এবং হাদীসের বর্ণনা বিবরণসহ তা উল্লেখ করেছি। সাদ বিন সাঈদের ব্যাপারে আরোপিত আপত্তির খন্ডনও করেছি। এছাড়া তিনি এ হাদীস একা বর্ণনা করেননি। আমি এর সমার্থক আরো ৮টি বর্ণনাও উল্লেখ করেছি।’ (আর-বাদরুল মুনীরঃ ৫/৭৫২)
এছাড়া নবীজির অপর কয়েকজন সাহাবী তথা জাবের রাযি., সাওবান রাযি. এবং আব্দুল্লাহ ইবনে ওমর রাযি. থেকেও এ বিষয়ে হাদীস বর্ণিত হয়েছে। বর্ণনাভঙ্গি ভিন্ন হলেও সবগুলোর মর্মার্থ একই।

(মুসনাদে আহমাদঃ ৩/৩০৮; সুনানে বায়হাকীঃ ৪/২৯২; সুনানে ইবনে মাজাহঃ হা-১৭১৫; সহীহ ইবনে হিব্বানঃ হা- ৩৬৩৫; সহীহ ইবনে খুযাইমাহঃ হা-২১১৫; সুনানে কুবরা- নাসায়ীঃ হা-২৮৬০; তাবারানীঃ হা-১৪৫১; আল-মু’জামূল আওসাত- তাবারানীঃ হা-৮৬২২)

উল্লেখ্য, শাওয়াল মাসের ৬ সিয়াম পুরো শাওয়াল মাসজুড়ে যে কোনো ৬ দিনে রাখা যায়। আবার একাধারে ৬ দিন অথবা মাঝখানে বিরতি দিয়ে মোট ৬টি সিয়াম পূর্ণ করা যায়। এক্ষেত্রে শাওয়াল মাসের নির্দিষ্ট কোনো দিন কিংবা একসাথে পরপর ৬ দিনে এ সিয়াম পূর্ণ করার কোনো বাধ্যবধকতা নেই। আল্লাহ তা’আলা তাঁর প্রিয় বান্দাগণের প্রতি অতিশয় মেহেরবান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.